Install App Install App

Signal App কি নিয়ে নিচ্ছে WhatsApp এর জায়গা, কি এই অ্যাপ? জানুন

দ্বারা Digit Bangla | পাবলিশড অন 28 Oct 2021
HIGHLIGHTS
  • হোয়াটসঅ্যাপ এবং সিগন্যাল এই দুই মেসেজিং অ্যাপের ইতিহাস কিন্তু খানিকটা এক

  • মেসেজিং অ্যাপ ইউজার প্রাইভেসি রক্ষায় এক্কেবারে অসফল

  • হোয়াটসঅ্যাপ তৈরির 5 বছর পর এই মেসেজিং অ্যাপকে কিনে নেয় মার্ক জুকারবারগের সংস্থা ফেসবুক

Signal App কি নিয়ে নিচ্ছে WhatsApp এর জায়গা, কি এই অ্যাপ? জানুন
Signal App কি নিয়ে নিচ্ছে WhatsApp এর জায়গা, কি এই অ্যাপ? জানুন

হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp), একসময়ের সবচাইতে বেশি জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপের জনপ্রিয়তা এখন প্রায় তলানিতে এসে ঠেকেছে বললেই চলে। বর্তমানে ফেসবুক মালিকানাধীন এই মেসেজিং অ্যাপের বিরুদ্ধে উঠেছে অনেক অভিযোগের আঙুল। কখনো অভিযোগ করা হয়েছে যে এই অ্যাপে ইউজারদের কনভারশেসন এন্ড টু এন্ড এনক্রিপটেড থাকে না, আবার কখনো শোনা গেছে যে এই মেসেজিং অ্যাপ ইউজার প্রাইভেসি রক্ষায় এক্কেবারে অসফল। ব্যবহারকারীদের খুশি করতে একেরপর এক নতুন ফিচার হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে এলেও মেলেনি কোনো সুরাহা। যার ফলে হোয়াটসঅ্যাপের জনপ্রিয়তার জায়গা দখল করেছে Signal (সিগন্যাল) এবং Telegram ( টেলিগ্রাম)-এর মতন মেসেজিং অ্যাপ।

হোয়াটসঅ্যাপ এবং সিগন্যাল এই দুই মেসেজিং অ্যাপের ইতিহাস কিন্তু খানিকটা এক। কেননা এই দুই অ্যাপের তৈরির সঙ্গে যোগ রয়েছে একই ব্যাক্তির। আজ থেকে 12 বছর আগে মানে 2009 সালে ব্রায়ান অ্যাকটন এবং জাঁ – ব্রায়ান মিলে তৈরি করেন হোয়াটসঅ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপ তৈরির 5 বছর পর এই মেসেজিং অ্যাপকে কিনে নেয় মার্ক জুকারবারগের সংস্থা ফেসবুক। সেইসময় ব্রায়ান অ্যাকটন হোয়াটসঅ্যাপের সাথে যুক্ত থাকলেও তিনবছর পরে সরে আসেন। কেননা জুকারবারগের সংস্থার ইউজার বেনিফিটের বদলে বিজনেস বেনিফিটকে বেশি গুরুত্ব দেবার বিষয়কে তিনি মেনে নিতে পারছিলেন না। পরে 2018 সালে মস্কি মারলিনস্পাইককে সাথে নিয়ে ব্রায়ান অ্যাকটনই তৈরি করেন Signal (সিগন্যাল)।

এখনো পর্যন্ত সিগন্যাল অ্যাপের গোটা বিশ্বে প্রায় 40 মিলিয়ন মান্থলি অ্যাকটিভ ইউজার রয়েছে। 2021 সালে Signal (সিগন্যাল) অ্যাপকে প্লে –স্টোর (PlayStore) থেকে ডাউনলোড করেছে 105 মিলিয়নেরও বেশি মানুষ। যে কারণে প্লে- স্টোরের ফ্রি অ্যাপসের লিস্টে সবার আগে রয়েছে সিগন্যাল। তবে এই অ্যাপ কেন ইউজারদের মধ্যে জনপ্রিয় তারও অনেক কারণ রয়েছে।

প্রধানত সিগন্যাল অ্যাপে রেজিস্ট্রেশনের সময় মোবাইল নাম্বার ছাড়া আর কোনো ডিটেলস লাগে না। এছাড়া এই অ্যাপে দুজন ইউজারের মধ্যে কনভারসেশন থাকে এক্কেবারে এন্ড-টু- এন্ড এনক্রিপটেড। এছাড়াও সিগন্যালে রয়েছে আরও কয়েকটি বিশেষ ফিচার, যার মধ্যে প্রধান হল Sealed Sender অপশন। যার সাহায্যে সেন্ডার এবং রিসিভার নিজের আইডেন্টিটি হাইড রাখতে পারবেন। এই অ্যাপের সাহায্যে কোনো ইমেজ বা ফটোগ্রাফ অন্য কোনো ইউজারকে পাঠানোর সময় তা ব্লার করে দেওয়া যায়।

সিগন্যাল অ্যাপের পাশাপাশি Telegram ( টেলিগ্রাম ) নামের একটি মেসেজিং অ্যাপও কিন্তু আজকাল বেশ জনপ্রিয়। এই অ্যাপে চ্যাট, ভিডিও কলের পাশাপাশি হাই-স্টোরেজের কোনো ফাইলও সহজে সেন্ড করা যায় অন্যকে। ইউজার প্রাইভেসির তালিকাতে এই অ্যাপের স্থান রয়েছে সবার আগে।

অন্যদিকে মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারদের জন্য নিয়ে এসেছে নতুন পেমেন্ট ফিচার। যার মাধ্যমে যে কোনো হোয়াটসঅ্যাপ কনট্যাক্টসকে ইউপিআই পেমেন্টের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যাবে। আপনি যদি এখনো পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট না করিয়ে থাকেন, তবে এক্ষুনি করিয়ে নিয়ে উপভোগ করুন এই ফিচার।

Web Title: Why Signal App is becoming more Popular than Whatsapp
Tags:
Signal App Social Media Whatsapp Android iOS Telegram সিগন্যাল অ্যাপ সোশ্যাল মিডিয়া হোয়াটসঅ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড আইওএস টেলিগ্রাম
Install App Install App
Advertisements

ট্রেন্ডিং আর্টিকেলস

Advertisements

LATEST ARTICLES ভিউ অল

Advertisements
DMCA.com Protection Status