Innelo 1 Review

দ্বারা Aparajita Maitra | আপডেট করা Oct 03 2018
Innelo 1  Review
DIGIT RATING
56 /100
  • design

    50

  • performance

    63

  • value for money

    53

  • feature

    55

  • PROS
  • ফ্রন্ট থেকে দেখতে ভাল
  • নচ যুক্ত ফোন
  • CONS
  • ফোনটির ক্যামেরা ভাল না
  • ব্যাটারি মোটামুটি
  • ডিজাইনে ভাল না সাধারন

নির্ণয়

আপনারা যদি এই সময়ে একটি এন্ট্রি লেভেল স্মার্টফোন কিনতে চান তবে প্রথমেই আপনাদের এটা বলে রাখি জে এই ফোনটি সেই সেগমেন্টেই পরে। আপনি যদি প্রথম কোন স্মার্টফোন কিনতে চান তবে এই ফোনটি কিনতে পারেন। কিন্তু আপনারা যদি একটি ভাল স্মার্টফোন কিনতে চাইছেন তবে এই Innelo  1 স্মার্টফোনটি না কেনাই ভাল।

এই দামের মধ্যে আপনারা Redmi 6 সিরিজের ফোন, বা Xiaomi র অন্য ফোনতো পাবেনই সঙ্গে সঙ্গে সম্প্রতি লঞ্চ হওয়া Realme র নতুন ফোন যার দাম ও এই দামের কাছাকাছি সেই C 1 ফোনটিও কিনতে পারেন।

এই ইনেলোফোনটি প্রথম স্মার্টফোন হিসাবে ঠিক থাকলেই এই ফোনটিকে এক কথায় খুব একটা ভাল ফোন বলা যায়না। ফোনটির ক্যামেরা ভাল না রেয়ার ক্যামেরা ঠিকঠাক ছবি তুললেও ফ্রন্ট ক্যামেরা আপনাকে নিরাশ করবে। তবে আসুন এই ফোনের একটি সম্পূর্ণ রিভিউ আমরা এখানে দেখে নি।

BUY Innelo 1

Buy now on amazon পাওয়া যাচ্ছে 4499

Innelo 1 detailed review

এখন প্রায় প্রতিদিনই ভারতে নিত্য নতুন ফোন আর নিত্যনতুন ব্র্যান্ড লঞ্চ হচ্ছে। আর এই সব ব্র্যান্ড বা ফোন গুলির প্রতধান উদ্দেশ্য কোন না কোন ভাবে নতুন কিছু গ্রাহকদের দেওয়া আর তার সঙ্গে এগিয়ে যেতে থাকা। আর এই সবের মাঝে একটি নতুন সাব ব্র্যান্ড সেপ্টেম্বর মাসে ভারতে এসেছে। আর এই ব্র্যান্ডটি হল iVooi র সাব ব্র্যান্ড Innelo আর এদের প্রথম ফোন innelo 1 য়ের রিভিউ আজকে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি।


Innelo 1 মোবাইল ফোনটি অল্প কিছু দিন আগেই ভারতে লঞ্চ হয়েছে। এই ফোনটি ivoomi র সাব ব্র্যান্ড ইনেলোর প্রথম ফোন। ইনেলো বাজেট সেগমেন্টে প্রিমিয়াম লিকের স্মার্টফোন আনার উদ্দেশ্যে এই ফোনটি নিয়ে এসেছে। এই ফোনটির দাম ভারতীয় মুদ্রায় 7,499টাকায় লঞ্চ করা হয়েছে। এই দামে যদিও এই সময়ে বেশ কিছু স্মার্টফোন ভারতের বাজারে এসেগেছ। আমরা সেই নিয়ে এই রিভিউতে ধিরে ধিরে আরও বিস্তৃত আলোচনা করব।

বাংলায় ‘প্রথম দর্শন’ বলে একটা কথা আছে। বলে প্রথম দর্শনে কোন জিনিস কেমন লাগল তার ওপরই আপনার সেই জিনিসটির ভাল মন্দ নির্ভর করে। আর সেটা স্মার্টফোনের ক্ষেত্রেও অনেকটাই ঠিক। যদিও এক্ষেত্রে এর পার্ফর্মেন্স একটা বড় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহন করে থাকে। Innelo 1 ফোনটা প্রথমে যখন হাতে নি সেই সময়ে আমার সেই প্রথম দর্শন তত্ত্ব কাজ করেছিল। ফোনটার ফ্রন্ট লুক আমার ঠিক যতটা পছন্দ হয়েছিল এর ব্যাক সাইডে আমায় ঠিক ততটাই নিরাশ করেছিল।

যাক সেই আসা নিরাসার কথা এবার আমরা আরও ডিটেলে এই রিভিউটির মাধ্যমে একবার দেখে নেব।

তবে এসবের সঙ্গে আপনাদের বলে রাখি যে যে দামের মধ্যে এই স্মার্টফোনটি লঞ্চ করেছে সেই দামের রেঞ্জে Xiaomi র 6 সিরিজের স্মার্টফোন তো আছেই এর সঙ্গে এই ফোনটি সদ্য লঞ্চ হওয়া Relame C1 য়ের সঙ্গেও প্রতিযোগিতা করবে।

আমরা প্রথমে এই ফোনটির স্পেসিফিকেশান একবার দেখে নি।

Ineneol 1 য়ের স্পেসিফিকেশান

ডিসপ্লেঃ 5.86 ইঞ্চি

রেয়ার ক্যামেরাঃ 13MP

ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ 5MP

ব্যাটারিঃ 3000mAh

র‍্যামঃ 2GB

ইন্টারনাল স্টোরেজঃ 16GB

প্রসেসারঃ মিডিয়াটেক MTK6737H

OS:  অ্যান্ড্রয়েড 8.1 ওরিও

বিল্ড আর ডিজাইন

Innelo 1 স্মার্টফোনটির ডিজাইনের বিষয়ে বলতে গেলে প্রথমেই যেটা বলতে হয় যে এই বাজেট ফোনটিকে অন্যান্য বাজেট ফোনের থেকে আলাদা করার উদেশ্যে নচ দেওয়া হয়েছে। হ্যাঁ এই ফোনটি একটি নচ যুক্ত ডিভাইস। এমনিতে এই ফোনটি দেখতে আর ৫ টা বাজেট ফোনের মতনই। ফোনটিতে 2.5D কার্ভড গ্লাস দেওয়া হয়েছে। ফোনটির ফ্রন্ট সাইডের ডিজাইন খারাপ না, আর এই ফ্রন্ট সাইড ডিজাইন দেখেই আমার সেই প্রথম দর্শনের অবস্থা হয়েছিল। মনে হয়েছিল কোম্পানি এর ডিজাইন নিয়ে খেটেছে। কিন্তু সেই ভ্রম ফোনটির ব্যাক সাইড দেখেই ভেঙ্গে যায়।

এই ফোনটি গ্লসি প্লাস্টিক বিল্ডের ফোন আর এটি ব্যাক সাইড দেখলে আপনাদের মোটেও ভাল লাগবেনা।

কারন আপনারা এই ছবি তে ফোনের ফ্রন্ট আর ব্যাক সাইড দুটিই দেখতে পারছেন। দেখা যাচ্ছে যে ফোনটি ফ্রন্ট সাইড দেখতে ভাল হলেও। এই ফোনের ব্যাক সাইড দেখতে ভাল না। ফোনটি প্লাস্টিক বিল্ডের আর এর ব্যাক সাইডে রেয়ার ক্যামেরার অবস্থান আর তার ডিজাইন আমার ব্যাক্তিগত ভাবে ভাল লাগেনি। এই ফোনটিতে ব্যাক সাইডে ওপরের দিকে বাদিকের কর্নারে ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে আর এই ক্যামেরাটির এই অদ্ভুত ডিজাইনের জন্য ক্যামেরা বাম্প আছে। আর যার ফলে ফোনটি সোজা করে টেবিল বা কিছুর ওপরে রাখলে অসমান ভাবে বসে থাকে। আর হাত লাগলে বাজে ভাবে ওঠা নামা করে। যা এই দামের ফোনের মধ্যে বেশ বাজে ব্যাপার।

আর এর সঙ্গে ফোনটির ব্যাকে ফ্ল্যাশের একটু নিচের দিকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সার দেওয়া হয়েছে। আর এই সেন্সারের নীচে কোম্পানি লোগো আর বাকি ডিটেলও দেখতে পাচ্ছেন।

ফোনটির ডান দিকে সিম স্লট আর মাইক্রো এসডি কার্ডের স্লটের পাসে ফোন অন অফের সুইচ দেওয়া হয়েছে। আর এই ফোনটিতে ডান দিকে দুটি সুইচ আছে।

এই বাজেট সেগমেন্টের ফোনে কন্তু কোন 3.5mm হেড ফোন জ্যাক দেওয়া হয়নি। আজকাল অনে ফোনেই হেডফোন জ্যাক দেওয়া হয়না, তবে সাধারন্ত ফ্ল্যাগশিপ ফোনে হেডফোন জ্যাক আজকাল না দেখা গেলেও এই রেঞ্জের ফোনে হেডফোন জ্যাক না থাকাটা আমায় ব্যাক্তিগতভাবে একটু অবাকই করেছে।

ওপরের ছবিতে আপনারা ফোনটির নিচের দিকের অংশও দেখতে পাচ্ছেন। এই ফোনের নিচের দিকে চার্জিং পোর্টের সঙ্গে একটি মাত্র ভলিউম রকার দেওয়া হয়েছে। একটি হলেও ভলিউম রকার এই সময়ের ট্রেন্ড অনুসারে নীচে দেওয়া হয়েছে তাই ফোনের শব্দ শুনতে অসুবিধা হয়না।

তবে হ্যাঁ যদি আপনারা বেশি ভিডিও দেখেন সেক্ষেত্রে একটু অসুবিধা হতে পারে। যদিও এই বিষয়ে ডিটেলসে আমরা পরে ভাল করে এই রিভিউতে আপনাদের বলছি।

তবে এই ফোনে যে ব্যাক ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে তা একটি সিঙ্গেল ক্যামেরা আর এখন যেখানে এই দামের অনেক ফোনেই ডুয়াল রেয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়।

 

ডিসপ্লে আর UI

Innelo 1 স্মার্টফোনটিতে 5.86ইঞ্চির একটি HD+ ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। আর এই ডিসপ্লেটির অ্যাস্পেক্ট রেশিও 19:9। 15020x720 পিক্সালের ডিসপ্লে যুক্ত এই ফোনটির একটি নচ যুক্ত ডিভাইস যা আমি আপনাদের আগেও বলেছি। আর এই ফোনের এই নচটাই আমার ব্যাক্তিগত ভাবে ভাল লেগেছে। এই ফোনটি এক্ত্যি 290 ppi যুক্ত ফোন।

এই ফোনের UI য়ের ব্রাইটনেস ঠিক ঠাক। এর সান লাইট ভিসিবেলেটি খুব ভাল বলা যায়না। সোজা কথায় এই ফোনটি সূর্যের আলোতে ভিসবিলাটি ভাল না। আপনি যদি ফোনটির ব্রাইটনেস সর্বোচ্চ করে দেন তাও এই ফোনটর সানলাইট ভিসিবালিটি ভাল দেখায় না।  ফোনটিকে যদি ফুল ব্রাইটনেসে রাখেন তবে ফোনটি ঠিকঠাক ব্রাইট বলে মনে হবে। তবে ঘরের ভেতরের আলো বা ডিম লাইটের মতন লাইটিংয়ে ফোনের উজ্জলতা অত খারাপ লাগেনা। তবে সব মিলিয়ে তা ঠিকঠাকই বলা যায়।

এই ফোনের UI অসাধারন নয়, এটি অ্যাভারেজ UI যুক্ত ফোন। ফোনের UI আপনারা সোয়াইপ করার সময়ে অনেক সময়ে মিস হয়ে যায়। মানে ধরুন ফোনের স্ক্রিন সরাচ্ছেন সে সময়ে আপনি কোন অ্যাপে ক্লিক না করলেও ফোনটি হয়ত তা সিলেক্ট করে নেয় আর অ্যাপ ভুল করে ওপেন হয়ে যায়।

পার্ফর্মেন্স

Innelo 1 ফোনটির পার্ফর্মেন্সের বিষয়ে যদি বলতে বলতে হয় তবে প্রথমে বলি যে এই ফোনটি গিকবেঞ্চের সিঙ্গেল আর মাল্টি কোরে যথাক্রমে 603 আর 1672 স্কোর করেছে। আর সত্যি বলতে কী যে এই স্কোরকে আমরা ভাল বলতে পারিনা। আর শুধু তাই না আমাদের টেস্টের সময়ে এই ফোনটি তে বেশ কিছু টেস্ট চাইলিয়ে দেখা যায়নি। আর তাই সব মিলিয়ে এর পার্ফর্মেন্স আমরা ভাল বলতে পারিনা। 

আর বাস্তব ব্যাবহারের ক্ষেত্রে আপনাদের বলে রাখি যে ফোনটি যে কদিন আমার কাছে ছিল আমি তা আমার প্রাইমারি ফোন হিসাবেই ব্যাবহার করেছি। আর এই ফোনটি আমার মতন ফোন ব্যাবহারকারীর জন্যে পার্ফর্মেন্স আমার ভাল লাগেনি। ফোনটি বেশি ব্যাবহার করা হলে এটি প্রায়ই ল্যাগ করে যায়। আর এই ফোনে গেমিং করেও আমি দেখেছি সত্যি বলতে এই ফোনে গেমিংয়ের অভিজ্ঞতাও মজার না।

ক্যামেরা

আগেই আপনাদের বলেছি যে এই ফোনে একটি 13MP র রেয়ার ক্যমেরা দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের এই ক্যামেরাতে আপনারা বিউটি মোড, ফেস কাটের মতন ফিচার পাবেন। আর এর সঙ্গে বিভিন্ন কালার সিলেকশানের অপশানও দেওয়া হয়েছে। যদিও এই ফোনের ক্যামেরাতে এই বিভিন্ন মোডে যে ছবি গুলি তোলা হয়েছে তা আপনারা এই রিভিউতে দেখতে পাচ্ছেন। আর দেখা যাচ্ছে যে ফোনটি বেশি আলোতে ঠিক ঠাক ছবি তুললেও আলো যদি একটু কম থাকে তবে ছবির কোয়ালিটি তেমন পাওয়া যায়না।

আর শুধু তাই না ওপরের ছবিতে আপনারা এও দেখতে পাবেন যে এই ফোনটি লো লাইটের সব ছবিই বেশ ব্লার আর ফোনটি ছবির শার্পনেস নিতে পারেনা। মানে এই ফোনের ছবির কোয়ালিটি ক্যামেরা মোটেও ভাল না। আপনারা যদি এই 13MP র ক্যামেরাটিতে অনেক কিছু আসা করেন তবে আপনাদের নিরাশ হতে হবে।

হ্যাঁ এটা ঠিক যে একটি এন্ট্রিলেভেল স্মার্টফোনে হয়ত বেশি ইছু থাকেনা তবু, এই ফোনটিতে আপনারা যে দামে কিনছেন সেই দামের রেঞ্জের মধ্যে বাকি যে ফোন আছে তার ক্যামেরা দেখে এই ফোনের ক্যামেরা কে আমি মোটেও  ভাল বলতে পারছিনা।

আপনারা যদি একটি ভাল ক্যামেরা যুক্ত ফোন চাইছেন, বা আপনাদের ছবি তোলার সখ থাকে তবে এই ফোনটির ক্যামেরা সে ক্ষেত্রে আপনাকে নিরাস করবে। যদিও ফোনে র 13MP র ক্যামেরা 5P লেন্সের আর এটি স্যামসাংয়ের লেস্ন সাপোর্ট করে। তবে এই ফোনের বিভিন্ন সময়ে তোলা বিভিন্ন ছবি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন আর তা কেমন তাও দেখতে পাচ্ছেন। ফোনটিতে শুধু আউটডোরে না অফিসের মধ্যেও বিভিন্ন ভাবে ছবি তোলা হয়েছে বিভিন্ন লাইটে সেই সব ছবিই আপনারা এখানে দেখতে পাচ্ছেন।

এই ফোনটিতগে আমরা লোলাইটতে যে ছবি তুলেছি তা বা অফিসের ভেতরে তোলা স্ন্যাপ সবেতে আপনারা এই ফোনের বিভিন্ন সময়ের বিভিন্ন লাইটের ছবি দেখতে পাচ্ছেন।

আর এবার আমরা এই ফোনটির 5Mp র ফ্রন্ট ক্যামেরার কথা বলব। ফ্রন্ট ক্যামেরাতে পোট্রেড মোড দেওয়া হয়েছে। যা এই রেঞ্জের ফোনের মধ্যে একটি ভাল প্রায়স। তবে ফোনের পোট্রেড মোডের ছবি থেকে আপনারা যদি খুব বেশি কিছু আসা করেন তবে সেটা ভুল হবে। কারন এই ছবিতে তোলা কিছু সেলফিও আপনারা এই রিভিউতে দেখতে পারেছেন। এই ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরাতে তোলা যে ছবি গুলি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন আপনাদের বলে রাখি সেগুলি কিন্তু এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরার বিউটি মোডে তোলা ছবি।

ব্যাটারি

এই ফোনে একটি 3000mAh ইয়ের ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। আপনারা যদি খুব বেশি হেভি গেমার না হন তবে এই ফোনের ব্যাটারি এক দিন মতন চলে যাবে। আমাদের ব্যাটারি টেস্টে ফোনটি 4 ঘণ্টা 49 মিনিট মতন থেকেছে। একে মোটেই ভাল বলা যায়না।

এই ফোনটি 30-32% চার্জ থেকে 100% মানে ফুল চার্জ হতে এক ঘন্টার কিছু বেশি সময় নেয়।

আপনাদের বলি যে এই ফোনটি রিভিউ করার সময়ে আমি ফোনটি আমার প্রাইমারী ফোন হিসাবেই ব্যাবহার করেছি। আর তাই ফোনটির ব্যাটারি যদি এক কথায় ভাল বা মন্দ বলতে হয় তবে একে আমি খুব একটা ভাল না বলতে পারলেও। এই ফোনে একবার চার্জ করে আপনারা একটা দিন চালিয়ে দিতে পারবেন।

উপসংহার

এবার আসি শেষের কথায়,এতক্ষন ধরে রিভিউটি পড়ে আপনারা এটা বুঝতে পেরেছেন যে এই দামের ফোনের মধ্যে একে আমরা মোটে ভাল ফোন বলতে পারিনা। যখন এন্ট্রি লেভেল স্মার্টফোনও অনেক কিছু দেওয়া হচ্ছে অনেক বেশি উন্নতি করা হচ্ছে সেই সময়ে এই ফোনটি কোম্পানির প্রথম ফোন হিসাবে সে ভাবে মোটেও ছাপ ফেলতে পারেনি।

7,499 টাকা দামের এই ফোনের আর যে প্রতিজগি ফোন আছে সেগুলি এই দামের মধ্যে অনেক ক্ষেত্রেই এগিয়ে। ফোনটিতে ডুয়া রেয়ার ক্যামেরা না থাকাও ফোনটির বিপক্ষে গেছে। আর তাই আপনারা যদি এই দামের ফোন কিনতে চান তবে সে ক্ষেত্রে আপনাদের কাছে অনেক অপশান আছে। আমার মতে এই দামে ফোন কিনতে হলে এই ফোনে তেমন কিছু নেই যে এই ফোনটি আপনাদের পছন্দ হবে। তবে হ্যাঁ এই দামের মধ্যে একটা ঠিক ঠাক কাজ চলার মতন ফোন চাইলে ফোনটি আপনার জন্যে ঠিকঠাক।

 

logo
Aparajita Maitra

Advertisements
Advertisements

Innelo 1

Innelo 1

Digit caters to the largest community of tech buyers, users and enthusiasts in India. The all new Digit in continues the legacy of Thinkdigit.com as one of the largest portals in India committed to technology users and buyers. Digit is also one of the most trusted names when it comes to technology reviews and buying advice and is home to the Digit Test Lab, India's most proficient center for testing and reviewing technology products.

We are about leadership-the 9.9 kind! Building a leading media company out of India.And,grooming new leaders for this promising industry.