কুলপ্যাড Note 6 64GB Review

দ্বারা Aparajita Maitra | আপডেট করা Jul 17 2018
কুলপ্যাড Note 6 64GB Review
DIGIT RATING
68 /100
  • design

    64

  • performance

    64

  • value for money

    68

  • feature

    74

  • PROS
  • ব্যাক সাইডে দেখতে ভাল দেখতে
  • ব্যাটারি লাইফ ভাল
  • ডিসপ্লে ভাল
  • CONS
  • পুরনো ফোর্ম ফ্যাক্টার
  • পুরনো অ্যান্ড্রয়েডে চলে

নির্ণয়

কুলপ্যাডের এই ফোনটি তার প্রতিযোগিদের প্রতিযোগিতায় ফেলতে পারে তবে এই ফোনটি শুধু অফলাইনে কিনতে পাওয়া যায়, যা সবার কাছে সব জায়গায় ফোনটিকে পৌঁছাতে দেবেনা।

BUY কুলপ্যাড Note 6 64GB

Buy now on amazon পাওয়া যাচ্ছে 8689

কুলপ্যাড Note 6 64GB detailed review

এটা এমন একটা সময় যখন চারদিকে প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন কোম্পানি ন্তুন স্মার্টফন লঞ্চ করছে। আর এন্ট্রিলেভেল বা মিড রেঞ্জের স্মার্টফন তো প্রায় রোজই লঞ্চ হচ্ছে। কখনো কোন কোম্পানির সাব ব্র্যান্ড হিসাবে আবার কখনও বা কোন ন্তুন কোম্পানির কোন নতুন ফোন। আর আজকে আমরা আমাদের কাছে এরকমই একটি নতুন স্মার্টফোনের রিভিউ নিয়ে এসেছি। এই ফোনটির নাম Coolpad Note 6। এট একটি 9,880টাকা দামের স্মার্টফোন।


কুলপ্যাডের নাম হয়ত খুব কম লোকেই শুনেছেন। আর এই দামের মধ্যে এখন সাওমি বা আরও বেশ কিছু ফন নিজেদের জায়গা করে নিয়েছে। এই ফোনটি অফলাইনেই পাওয়া যায়। আর তাই যে সমস্ত মানুষরা সুধু অফলাইনে ফন কেনেন তাদের জন্য ভাল ব্যাপার তেমনি ফোনের ব্যাপপ্তিও বিস্তৃতির জন্য হয়ত শুধুমাত্র অফলাইনে পাওয়াটা ভাল ব্যাপার নয়।

তবে এসবের মাছে রিভিউয়ে ডিটেলে যাওয়ার আগে এতা বলে রাখা ভাল যে ফোনটি প্রথমে বক্স থেকে বার করার পরে ফোনের ব্যাকসাইডের ডিজাইন আমায় আকর্ষিত করেছিল। ফোনের রেয়ার ক্যামেরা প্লেসমেন্ট, ব্র্যান্ডিং এসবই তার কারন। তবে ফোনটা ব্যাকে দেখতে যতটা নতুন ফ্রন্টে তা নয়, ফ্রন্ট থেকে ফোনটি দেখতে অনেক স্যামসং ফোনের কথা মনে করিয়ে দেয়। আর এর সঙ্গে ফোনটা বেশ কিছুদিন টানা ব্যাবহার করে এর ব্যাটারি লাইফ যে সত্যি ভাল এই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। আসুন এবার তাহলে এই ফোনটির ডিজাইন থেকে ক্যামেরা কিম্বা ব্যাটারি লাইফ সব কিছুর ডিটেলে আলোচনা করা যাক।

বিল্ড আর ডিজাইন

কুলপ্যাড নোট 6 য়ের ডিজাইন একদম অন্যরকমের। এই ফোনটি মেটাল বডির আর এর সঙ্গে ফোনের দু’দিকে গ্লাসও দেওয়া হয়েছে। আমি আগেই আপনাদের বলেছি যে ফোনটা বক্স থেকে বার করা পরে আমার প্রথমেই ফোনটির ব্যাক সাইডের ডিজাইন বেশ ভাল লাগে। ব্যাক সাইডে ফোনটিতে একটি অন্য রকমের লুক দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। ফোনটিতে বাঁদিকে কর্নারে রেয়ার ক্যামেরা আর ডানদিকে নিচের দিকের কর্নারে ব্র্যান্ডিং দেওয়া হয়েছে।

তবে এই ফোনটির ব্যাক সাইডের ডিজাইনে যতটা নতুন্ত্ব দেওয়া হয়েছে ফ্রন্টে তা নয়, ফ্রন্ট সাইড থেকে ফোনটি স্যামসংয়ের পুরনো J সিরিজের ফোনের মতনই। আমার মনে হয়েছে যে কুলপ্যাড যদি ফ্রন্টের ডিজাইনও অন্যরকম করত তবে তা গ্রাহকদের বেশি পছন্দ হত, তবে হ্যাঁ সব সময়ে ফোন পছন্দের ক্ষেত্রে মানুষের নিজস্ব পছন্দ অপছন্দ কাজ করে। তবে আমার নিজের ব্যাক্তিগত ভাবে ফোনটির ফ্রন্ট ডিজাইন তেমন কিছু লাগেনি।

এই ফোনে বেজেল দেখা যাবে আর এই ফোনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সার ফোনের হোম বটনে দেওয়া হয়েছে, আর ফোনটিতের রেয়ার আর ফ্রন্ট দুই ক্যামেরাতেই LED ফ্ল্যাশ দেওয়া হয়েছে। ফোনের রেয়ার ক্যামেরার ফ্ল্যাশ প্লেসমেন্ট ডুয়াল ক্যামেরার মতন। আর এই স্মার্টফোনটিতে নিচের দিকে চার্জিং পোর্ট, 3.5mm হেডফোন জ্যাক আর সাউন্ড পোর্ট দেওয়া হয়েছে। আর ফোনটির ডান দিকে পাওয়ার অন অফ সুইচ আর ভলিউম রকার দেওয়া হয়েছে।

ডিসপ্লে

এখন যখন সব কোম্পানি বড় ডিসপ্লের ফোন লঞ্চ করছে সেখানে কুল প্যাডের এই ফোনটিতে 5.5ইঞ্চির ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। আর ফোনটির অ্যাস্পেক্ট রেশিও 16: 9। এই ফোনটি অবশ্য ফুল HD রেজিলিউশানের ফোন আর ফোনের ব্রাইটনেশ অবশ্য ভাল। এই রেঞ্জের ফোনের মধ্যে Xiaomi Redmi Note 5 Pro ফোনের থেকে Coolpad Note 6 য়ের ব্রাইটনেশ বেশি। আর তা সুর্যের আলোতেও ভাল করে বোঝা যায়।

আর সতি বলতে আমি কুলপ্যাডের ফোনের ব্রাইটনেশ যে এরকম ভাল হবে তা আশা করিনি। তবে এখানে কুলপ্যাড প্রাত্যাশার থেকে বেশি ভাল কাজ করেছে।

আর সব মিলিয়ে এটা ব্লা যায় যে এই ফোনের ডিসপ্লে ভাল হলেও 5.5ইঞ্চির ডিসপ্লে সাইজ আর এই অ্যাস্পেক্ট রেশিওর জন্য ফোনটির ডিসপ্লে ভাল হলেও অসাধারন হয়ে উঠতে পারেনি।

পার্ফর্মেন্স আর UI

Coolpad Note 6 ফোনটি তার প্রতি্যোগিদের থেকে পার্ফমেন্সে কিছুটা হলেও পিছিয়ে আছে। আর এর কারন এই যে যেখানে এই সময়ের এন্ট্রি লেভেল বা মিড রেঞ্জের স্মার্টফোনে কোয়াল্কমের লেটেস্ট চিপসেট দেওয়া হচ্ছে, সেখানে কুলপ্যআড এখনও পেছেন পরে আছে। বাস্তবের ব্যাবহারের নিজের প্রতিযোগীদের থেকে কুলপ্যাড কিছুতা পিছিয়ে আছে। কারন অনেক ক্ষেত্রে অ্যাপ খুলতে বা অ্যাপ লোড হতে অনেক বেশি সময় নেয়।

আর এসবের মধ্যে একটা জায়গায় আমার নিজের ফোনটি ব্যাবহার করতে অসুবিধা হয়েছিল, যখন আমি ফেসবুক অ্যাপ ওপেনের সমস্যা এই ফোনে দেখি। আমি কুলপ্যাড ণোট 6ফোনটিকে আমার প্রতিদিনের ব্যাবহারের কাজে বেশ কিছু দিন ব্যাবহার করেছি। আর সেই সময়েই আমি দেখতে পাই যে এই ফোন থেকে ফেসবুক ওপেন করতে আর অনেক সময়ে ফেসবুক ওপেন হলে তা নিজে থেকেই হঠাৎ বন্ধ হওয়ার মতন সমস্যা দেখেছি। এই সময়ে মানুষ স্মার্টফোনের একটা বেশির ভাগ সময় নিজেদের সোশাল মিডিয়া পেজে কাটায় আর তখন যদি এই ধরনের সমস্যা দেখা যায় তা হলে তা যে গ্রাহকদের ভাল লাগবে না তা বলা বাহুল্য। আমি নিজেই এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছি।

ক্যামেরা

Coolpad note 6 ফোনের ক্যামেরা এই সময়ের ট্রেন্ড অনুসারে তৈরি হয়নি। এই ফোনে একটি 13Mp র রেয়ায়র ক্যামেরা f2.2 অ্যাপার্চারের সঙ্গে দেওয়া হয়েছে। তবে এই ফোনের তোলা ছবির কথা যদি বলেন তবে এতাই বলব যে এই ফোনে তোলা ছবির কালার রিপ্রোডাকশান ভাল। আর এই ফোনের রেয়ার ক্যামেরায় তোলা বিভিন্ন সময়ের কিছু ছবি আপনারা এখানে দেখতে পারবেন। তবে এই ফোনে ডুয়াল রেয়ার ক্যামেরা না থাকা ফোনের পক্ষে বাজারে টিকে থাকার ক্ষেত্রে একটু পিছিয়ে রেখেছে। আর এই ফোনের ক্যামেরাতে খুব বেশি ডিটলিং আশা করা উচিত নয়। তবে এটুকু বলা যায় যে আপনার জদি ফোন ফটোগ্রাফির তেমন সখ না থাকে আর একটি ঠিক ঠাক ক্যামেরা যুক্ত ফোনের সন্ধান করেন তবে এই ফোনের ক্যামেরা আপনাদের খুব একটা খারাপ লাগবেনা।

ফোনটির ব্রাইট লাইতে তোলা ছবি ভাল হলেও এর ক্যামেরার দুর্বলতা লো লাইট শটে বোঝা যাবে। এই ফোনটি লো লাইটে ফোকাস হতে অনেক বেশি সময় নেয়। কুলপ্যাডের অন্য ফোনের থেকে আর ক্যামেরা ভাল হলেও এই দামের ফোনের মধ্যে এখনও এখানেও সাওমির ফোন এগিয়ে আছে।

কুল প্যাড নোট 6 য়ের রেয়ার ক্যামেরাতে তোলা কিছু ছবি

 

মজার ব্যাপার এই যে যেখানে ফোনের রেয়ারে একটি ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে সেখানে ফ্রন্টে 5Mp আর 8MP র ডুয়াল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের প্রাইমারি সেলফি ক্যামেরা ভাল লাইটে আপনার ছবি নেবে। তবে এখানে oppo F3 র মতন গ্রুপ সেলফির জন্য আলাদা অ্যাঙ্গেল নেই। এখানে আপনারা এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরায় তোলা কিছু ছবি দেখতে পারবেন।

ফ্রন্ট ক্যামেরাতে তোলা কিছু ছবি

ব্যাটারি

Coolpad Note 56 ফোনে একটি 4076mAh য়ের ব্যাটারি আছে। আর সত্যি বলতে কি কুলপ্যাডের এই ফোনের ব্যাটারি লাইফ বেশ ভাল। এই ফোনে সারা দিনের সব কাজ করে। ফোন কল, সোশাল মিডিয়া, ছবি তোলা ইউটিউবে ভিডিও দেখা এমন কি ফোনে ফ্রুট নিঞ্জা আর Asphalt 8 য়ের মতন গেম খেলার পরেই এই ফোনটির চার্জ শেষ হয়না। ফোনটি সারা দিনে একবার চার্জ করলেই হয়ে যায়। আর জারা বেশি গেমিং করেন না তাদের জন্য যে এই ফোনের ব্যাতারি আরও বেশি থাকবে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই।

তবে কুলপ্যাডের ফোন ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে না আর তাই ফোনটি সম্পূর্ণ ভাবে চার্জ হতে 1ঘন্টা থেকে দের ঘন্টা সময় নেয় চার্জ হতে। তবে হ্যাঁ ফোনটি একবার চার্জ হলে তা নিশ্চিন্তে দির্ঘ সময় ধরে চলবে।

উপসংহার

যখন এই সময়ের মিড রেঞ্জ ফোন অনেক দিনে এগিয়ে যাচ্ছে তখন কুল প্যাড নোট 6 অনেক ক্ষেত্রেই অনেক পিছিয়ে আছে। এই ফোনটি সাওমি বা হনারের ফোনের সঙ্গে তুলনায় আসেনা। এই ফোনটি তাদের জন্য খুব ভাল যাদের কাছে ফোনের দরকার লিমিটেড। তবে যখন এই রেঞ্জের মধ্যে সাওমি Y2 বা Redmi 5 য়ের মতন ফোন আছে তখন কুলপ্যাডের এই ফোনটি কতজনের পছন্দ হবে সন্দেহ জনক।

 

logo
Aparajita Maitra

Advertisements
Advertisements

কুলপ্যাড Note 6 64GB

কুলপ্যাড Note 6 64GB

Digit caters to the largest community of tech buyers, users and enthusiasts in India. The all new Digit in continues the legacy of Thinkdigit.com as one of the largest portals in India committed to technology users and buyers. Digit is also one of the most trusted names when it comes to technology reviews and buying advice and is home to the Digit Test Lab, India's most proficient center for testing and reviewing technology products.

We are about leadership-the 9.9 kind! Building a leading media company out of India.And,grooming new leaders for this promising industry.