স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব S8 সিরিজ প্রিমিয়াম ভার্সেটাইল সব ট্যাব অফার করছে, কোনটার কী ফিচার জেনে নিন

Brand Story | পাবলিশড অন 16 Jun 2022
স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব S8 সিরিজ প্রিমিয়াম ভার্সেটাইল সব ট্যাব অফার করছে, কোনটার কী ফিচার জেনে নিন

স্যামসাং এর Galaxy Tab S8 series হচ্ছে প্রিমিয়াম ট্যাবলেট সিরিজ। সব কটা ট্যাবলেট ভীষণ রকম ভার্সেটাইল, এতে যেমন কাজও করা যায় তেমন অবসরে game বা entertainment purpose-ও ব্যবহার করা যায়। এই সিরিজে তিনটে দারুন অপশন রয়েছে নিজের সুবিধা বা পছন্দ অনুযায়ী বেছে নেওয়ার জন্য, Galaxy Tab S8 ultra, Galaxy Tab S8+ এবং Galaxy Tab S8। প্রতিটা ট্যাবেই spacious display এর সুবিধা আছে, সঙ্গে আছে S pen stylus যা বেস্ট ইন ক্লাস পারফরমেন্স অফার করে। 

এই তিনটে ট্যাবের মধ্যে কোনটা কিনবেন তাই নিয়ে ধন্দে আছেন? তাহলে দেখে নেওয়া যাক কোন ট্যাবটা আপনার জন্য উপযোগী। 

Samsung Galaxy Tab S8 Ultra - যত বড়, তত ভাল

যাঁরা হাই প্রোডাক্টিভিটি চাইছেন নিজের ট্যাব থেকে তাঁদের জন্য এটা বেস্ট অপশন। 14.6 ইঞ্চ AMOLED ডিসপ্লে আছে। এর পাশাপাশি এই ট্যাবে সেই সমস্ত tool আছে যার মাধ্যমে আপনি নিজেকে প্রোডাক্টিভ রাখতে পারেন। এর জন্য আপনাকে আপনার ডেস্কে সবসময় বসে থাকতে হবে না। এই ট্যাবের মাধ্যমেই আপনি কাজ করতে পারবেন।

এই ট্যাবে বিভিন্ন অ্যাপস রাখার অনেক জায়গা রয়েছে, শুধু তাই নয়, multitaskও করা যাবে এই ফোনে। এই যেমন, ছাত্র ছাত্রী বা কর্মরতরা এখানে ভিডিও দেখতে দেখতে পয়েন্টস নোট করতে পারবেন, বা বন্ধু অথবা কলিগদের সঙ্গে ভিডিও কল করতে পারবেন।

 

ভিডিও কল বললাম যখন, তখন এখানে জানাই, Samsung Galaxy Tab S8 Ultra তে ফ্রন্টে dual Ultra wide ক্যামেরা আছে যা আপনার ভিডিও কলিং এক্সপিরিয়েন্সকে অন্য মাত্রায় পৌঁছে দেবে। ধরা যাক আপনি একজন ফিটনেস ইন্সট্রাক্টর, যিনি online class নেন, তিনি একটা ওয়াইড ফ্রেম শেয়ার করতে পারবেন ছাত্রদের সঙ্গে, এর পাশাপাশি তিনি সহজেই সকল ছাত্র ছাত্রীদের উপর নজর রাখতে পারবেন এই বড় ডিসপ্লের কারণে। 

এই ট্যাবের অডিও আউটপুট Quad AKG tuned স্পিকার থেকে আসে, ফলে সেটা ভিডিও কলের এক্সপিরিয়েন্সকে আরও ভাল করে তোলেন।

ডিজিটাল ক্রিয়েটার, আর্টিস্টদের কাছে এই ডিভাইস  ভীষণ অ্যাপিলিং। এই সিরিজের অন্যান্য ট্যাবের মতো এই ট্যাবেও সেকেন্ডারি স্ক্রিন আছে আপনার গ্যালাক্সি বুক 2 সিরিজ ল্যাপটপের মতো। এটাকে keyboard এর সঙ্গে যুক্ত করে দিলে অটোমেটিক্যালি Samsung Dexকে ট্রিগার করবে, এবং PC-র এক্সপিরিয়েন্স দেবে আপনাকে। Microsoft office এর মতো অ্যাপ এখানে ব্যবহার করা যাবে মাল্টিটাস্কিংয়ের জন্য। 

এই ট্যাবটি সহজেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় carry করা যায়। এর অ্যালুমিনিয়াম কেসিং এটাকে আরও শক্তিশালী বানিয়ে তুলেছে। এতে 12GB ram+256GB স্টোরেজ আছে, সঙ্গে 13+6 মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা এবং ফ্রন্টে 12+12 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে। ব্যাটারি 11200 mAh এর সঙ্গে 45W ফাস্ট চার্জিং এর সুবিধা আছে। দাম শুরু হচ্ছে 108999 টাকা দিয়ে।

Samsung Galaxy Tab S8 Plus

এই ট্যাবটি আপনার কাজ এবং এন্টারটেনমেন্ট চাহিদা পূরণ করবে এবং দুটোর মধ্যে ব্যালেন্স বজায় রাখবে। Samsung Galaxy Tab S8 Plus এর বড় ডিসপ্লে প্রোডাক্টিভ কাজের জন্য দারুন উপযোগী। একই সঙ্গে এটাকে গেমিং ডিভাইস হিসেবেও ব্যবহার করা যেতে পারে। 12.4 ইঞ্চির AMOLED ডিসপ্লে আছে 120HZ refresh rate এর সঙ্গে। Snapdragon 8GEN 1chipset পেয়ার করা আছে 8GB ram এবং 128 GB স্টোরেজের সঙ্গে। 1TB মাইক্রো এসডি কার্ড অ্যাড করা যায় এখানে বিভিন্ন কাজ সেভ করে রাখার জন্য।

পুরনো স্মার্টফোনে কাজ করতে যে অসুবিধাগুলো হতো সেগুলোকে ভুলে দারুন ভাবে কাজ করার জন্য এই ট্যাবের থেকে ভাল অপশন কিছু নেই। এখানে শুধু বড় স্ক্রিনই নেই, আছে Quad audio স্পিকার যেটা আপনাকে multimedia contentকে এনজয় করতে সাহায্য করবে। এখানেও 12+12 মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে, রিয়ার ক্যামেরা 13+6 মেগাপিক্সেলের। 10090mAh ব্যাটারি লাইফ আছে 45W ফাস্ট চার্জিং এর সঙ্গে। এর দাম শুরু হচ্ছে 74999 টাকা দিয়ে। 

Samsung Galaxy Tab S8 - সর্বাধিক বহনযোগ্যতা

11ইঞ্চ ডিসপ্লের এই ফোনটি সহজেই সব জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায় কোনও অসুবিধা ছাড়াই। এই তিনটে ট্যাবের মধ্যে সব থেকে হালকা হচ্ছে এই ফোন। সহজেই ব্যাগে নিয়ে যাওয়া যায়, বিছানায় শুয়ে বা ক্যাফেতে বসে বই পড়া যায়, এমনকি কাজও করা যায় এতে। জিমে ওয়ার্কআউট করার সময়েও ট্রেডমিলের উপর রেখে দেখা যায় এই ট্যাব।

এখানে Qualcomm Snapdragon Gen1 প্রসেসর রয়েছে, সঙ্গে আছে 8 GB ram এবং 128 GB স্টোরেজ। পারফরমেন্স কম্প্রোমাইজ না করেই এই ফোন সব জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায়। যাঁরা রাস্তায় যেতে যেতে নিজের পছন্দের শো দেখতে পছন্দ করেন তাঁদের জন্য এই ট্যাব একদম উপযোগী।  এখানেও 12+12 মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং রিয়ারে 13+6 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা আছে। এর ব্যাটারি লাইফ বাকি দুটোর থেকে একটু কম, 8000mAh, দাম শুরু হয় 58999 টাকা দিয়ে।

There are no wrong choices here!

 

কোন ডিসপ্লে সাইজ আপনার জন্য উপযোগী সাইট দেখেই বেছে নিন এই সিরিজের যে কোনও একটি ফোন। প্রতিটা ট্যাবই শক্তিশালী, এবং দারুন পারফর্ম করে। সব কটাই WiFi এবং 5G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে। সারাদিনের ব্যাটারি লাইফ সহ বিভিন্ন উপযোগী tool যেমন S pen এর সুবিধা আছে যার সাহায্যে নোটস নেওয়া বা প্রিসাইজ টাচ করা যায়। 3mic noise reduction tech এর ব্যবস্থাও আছে। OneUI 4.1 সফটওয়্যার DeX ডেস্কটপ মোড সাপোর্ট করে। অন্য গ্যালাক্সি ডিভাইসের সঙ্গে সহজেই কানেক্ট করতে পারে এই ট্যাবগুলো যার ফলে সহজে  ছবি, ডকুমেন্ট শেয়ার করা যায়। এভাবে বিভিন্ন গ্যালাক্সি ডিভাইস যেমন Galaxy Buds, Galaxy Book2 laptops কানেক্ট করে ফলে একটা ক্লোজ নিট ইকোসিস্টেম তৈরি হয়ে যায়।

Galaxy Tab S8 Ultra WiFi ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 108999, আর 5G ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 122999। অন্যদিকে Galaxy Tab S8 Plus এর WiFi ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 74999, আর 5G ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 87999 টাকা। Galaxy Tab S8 এর WiFi ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 58999, আর 5G ভ্যারিয়েন্ট এর দাম 70999 টাকা।

এখন নানান অফার চলছে এই ট্যাবগুলোতে। ক্যাশব্যাক অফার চলছে। HDFC ব্যাংকের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে কেনাকাটা করলে ক্যাশব্যাক পাওয়া যাচ্ছে।

[ব্র্যান্ড স্টোরি]